Rapid IT এডুকেশন ম্যানেজমেন্ট সফটওয়ার এবং ওয়েব সাইট

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বেঁধে দেয়া নিয়ম অনুযায়ী এ সফটওয়ারটি ব্যবহারে আপনার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হবে আরো আধুনিক, ডিজিটাল এবং সহজ। এ সফটওয়ারটিতে যেসকল সুবিধা সমূহ রয়েছে-

ছবিসহ ছাত্র/ছাত্রী, শিক্ষক, কর্মচারী এবং ম্যানেজিং কমিটির প্রোফাইল তৈরির ব্যবস্থা

ডিজিটাল প্রযুক্তিতে ছাত্র/শিক্ষকের হাজিরা গ্রহণের ব্যবস্থা

শিক্ষার্থীর টিউশন ফি গ্রহন এবং শিক্ষক/কর্মচারীর বেতন প্রদান

মোবাইলে অভিভাবকের নিকট এসএমএস নটিফিকেশন প্রেরণ

প্রতিষ্ঠানের আয় ব্যয়ের পূর্ণাঙ্গ হিসেব রাখার ব্যবস্থা। প্রয়োজন অনুযায়ী রিপোর্ট বের করা

অনলাইনে ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা

-

অটোমেটিক মার্কশীট, ট্রান্সফার সার্টিফিকেট, প্রশংসাপত্র

বিটিসিএল এর .edu.bd ডোমিন

প্রতিষ্ঠান প্রধান, সভাপতি, প্রতিষ্ঠাতার ছবিসহ বাণী

এছাড়াও প্রতিষ্ঠানের আয় ব্যয়ের পূর্ণাঙ্গ হিসেব রাখার ব্যবস্থা। প্রয়োজন অনুযায়ী রিপোর্ট বের করা। প্রতিষ্ঠানের ইতিহাস, ভৌত অবকাঠামো, সর্বশেষ সংবাদ, ফটোগ্যালারী, নোটিশ বোর্ড, গুরুত্বপূর্ণ লিংক, ফেইসবুক সহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসমূহ, মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীর তালিকা, ক্লাশ রুটিন, প্রবন্ধ, শিক্ষক/শিক্ষার্থী/অভিভাবক কর্ণার, একাডেমিক ক্যালেন্ডার, ছুটিরতালিকা,ভিজিটর কাউন্টার,ক্যারিয়ার, বিজ্ঞাপন ইত্যাদি যুক্ত করার ব্যবস্থা।-

স্মার্ট আইডি কার্ড

বাংলাদেশে একমাত্র আমাদের সফটওয়ার থেকেই অটোমেটিক স্মার্ট আইডি কার্ড প্রিন্ট যায়। ফলে ছাত্র/শিক্ষকের আইডি কার্ড তৈরির জন্য আলাদা কোন ঝামেলা নেই। সুদৃশ্য এই আইডি কার্ডের ভেতওর ইলেকট্রিক চিপ বসানো। যা মেশিন রিডেবল। ফলে ছাত্র/শিক্ষকগণের উপস্থিতি খুব সহজেই ডিজিটাল সিস্টেমে নিশ্চিত করা যায। মেশিনটি ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং আইডিকার্ড উভয় সাপোর্ট করে। প্রতিটি উপস্থিতির জন্য মাত্র ১ সেকেন্ড সময় প্রয়োজন হয়। এমনকি কার্ডটি যদি মানিব্যগে রাখা হয়, শুধুমাত্র মানিব্যাগটি মেশিনের সামনে ধরলে উপস্থিতি নিশ্চিত হয়ে যাবে। কার্ডটি মেশিনে ছোঁয়ানোর পর্যন্ত প্রয়োজন নেই। মেশিনের চার ইঞ্চির মধ্যে কার্ড রিড করতে পারে।
প্রতিদিন এভাবে মেশিনের মাধ্যমে উপস্থিতি গ্রহনের পর তার ডাটা চলে যাবে প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটে। কর্তৃপক্ষ চাইলে যেসব ছাত্র/ছাত্রী অনুপস্থিত থাকবে তাদের অভিবাকের নিকট এসএমএস প্রেরণের মাধ্যমে জানিয়ে দিতে পারবেন। তাছাড়া পৃথিবীর যে কোন জায়গা থেকে মাত্র দুই ক্লিকের মাধ্যমে যে কোন ছাত্র/ছাত্রীর সারা বছরের উপস্থিতির হিসেব দেখা যাবে।

অটোমেটেড মার্কশীট

আমাদের সফটওয়ার ব্যবহারে হাতে তৈরি মার্কশীটের ঝামেলা বন্ধ হয়ে যাবে। ওয়েবসাইটে ছাত্রছাত্রীর প্রাপ্ত নাম্বার ইনপুট দেয়া হলে অটোমেটিক তা গ্রেডিং সিস্টেমে চলে আসবে। এমনকি চতুর্থ বিষয়ে ৪০ এর উপরে মার্ক পেলে তা মূল নাম্বারে যুক্ত হবে। মোট কথা সরকারী নিয়ম অনুযায়ী মার্কশীট তৈরি হবে। ফলে শিক্ষকগণের ঝামেলা কমে যাবে অনেক খানি। এছাড়া প্রতি পরীক্ষার টেবুলেশনশীট প্রিন্ট করা যাবে খুব সহজে। আর যে কেউ ঘরে বসে তার রেজাল্ট দেখতে পারবে পাবলিক পরীক্ষার ফলাফলের মতো। কারো অভিভাবক দেশের বাইরে থাকলে অনলাইনে তার সন্তানের রেজাল্ট এবং উপস্থিতি দেখতে পারবেন।

অটোমেটেড ট্রান্সফার সার্টিফিকেট এবং প্রশংসাপত্র

সফটওয়ারে টিসি এবং প্রশংসাপত্রের টোটাল লেআউট করা আছে। যে শিক্ষার্থীর টিসি বা প্রশংসাপত্র প্রয়োজন তার রোল নাম্বার সাবমিট করলেই পুরো সার্টিফিকেট রেডি হয়ে চলে আসবে। এরপর তা প্রিন্ট করে শুধুমাত্র প্রয়োজনীয় স্বাক্ষর এবং সীল।

প্রতিষ্ঠানের আয় ব্যয়, শিক্ষার্থীর বেতন, স্টাফদের স্যালারী

সফটওয়ারে ব্যাংকিং সিস্টেমে আয় ব্যয়ের হিসেব রাখা যাবে। শিক্ষার্থীর বেতন, ভর্তি ফি, পরীক্ষার ফিসহ অন্যান্য ফি প্রত্যেকে শিক্ষার্থীর নিজস্ব আইডিতে রাখা যাবে যা প্রতিষ্ঠানের মূল আয়ের খাতেও যুক্ত হবে। এছাড়া প্রতিষ্ঠানের দৈনিক খরচের হিসেবও রাখা যাবে সহজে। প্রয়োজন মতো তারিখ অনুযায়ী ডিটেইলস কিংবা সংক্ষিপ্ত রিপোর্ট বের করা যাবে। ফলে অডিটের সময় ঝামেলা কমে যাবে ৮০ ভাগ। প্রতিষ্ঠানে একাধিক অপারেটর থাকলে ব্যাংকের কাউন্টারের মতো সবার জন্য আলাদা আইডি থাকবে। ফলে কে কত টাকা গ্রহন এবং প্রদান করলো এবং দিন শেষে তার কাছে কত টাকা অবশিষ্ট আছে তার হিসেব থাকবে।

ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার মাধ্যমে ঘরে বসে ক্লাশরুম পরিদর্শন

প্রতিটি শ্রেণীকক্ষে সিসিটিভি ক্যামেরার মাধ্যমে প্রধান শিক্ষক শ্রেণীকক্ষ পরিদর্শন করতে পারবেন। সাথে উচ্চগতির ইন্টারনেট সংযোগ দিয়ে ওয়েবসাইটের সাথে সংযুক্ত করে দিলে অভিভাবকগণ পৃথিবীর যে কোন স্থানে বসে সন্তানের শ্রেণীকক্ষ সরাসরি পর্যবেক্ষন করতে পারবেন। ফলে পরীক্ষায় নকল বন্ধ হয়ে যাবে শতভাগ। ইভটিজিং সহ নানা সমস্যার সমাধান হবে। প্রধান শিক্ষকের কক্ষে একটি মাইক্রোফোন এবং এবং প্রতিটি শ্রেণীতে স্পীকার বসানো হলে প্রধান শিক্ষক তার কক্ষে বসেই দিক নির্দেশনা দিতে পারবেন।

মোবাইলে এসএমএস নোটিফিকেশন

শিক্ষার্থীর উপস্থিতির তথ্য দৈনিক, সাপ্তাহিক কিংবা মাসিক সামারী আকারে পাঠিয়ে দেয়া যাবে অভিভাবকের মোবাইলে। এ জন্য পূর্বেই আমাদের কাছ থেকে বাল্ক এসএমএস কিনে নিতে হবে। যার ব্যালেন্স দেখা যাবে ওয়েব সাইটেই। এছাড়া পরীক্ষার ফলাফল সহ যে কোন সংবাদ খুব সহজেই শিক্ষার্থীর অভিভাবকের মোবাইলে পাঠিয়ে দেয়া যাবে।

আমাদের এ সফটওয়ারটি বহু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ব্যবহৃত হচ্ছে। নিন্মে কয়েকটির ঠিকানা উল্লেখ করা হলো

বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ

মাদ্রাসা

Rapid IT

We believe, Most Important requirement of your website is that it generates sales and leads. We make products that make websites make money.

Feel free to contact us

SM Nahidur Rahman, CEO (Founder)

Call Us 01673 77 47 46

Send an Email [email protected]

Visit 16/4/A, South Badda, 5th floor, Hatirjheel, Gulshan-1, Dhaka

Quick Contact